Jun 16, 2024
Political

Abhishek on SSC : "একদিকে মমতার সরকার চাকরি দিচ্ছে, অন্যদিকে সিপিএম-বিজেপি চাকরি খাচ্ছে” নির্বাচনী প্রচারের মঞ্চ থেকে বিষ্ফোরক অভিষেক

post-img

সুমন তরফদার। কলকাতা সারাদিন।

অভিষেক-আবেগে জনজোয়ারে ভাসল হাওড়ার দাশনগর থানার মোড় থেকে বালিটিকুরী মুক্তারাম দে হাই স্কুল পর্যন্ত রাস্তা। সোমবার, বিকেলে দলীয় প্রার্থীদের নিয়ে হুড খোলা ট্যাবলোতে রোড শো করলেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

দাশনগর থানার মোড় থেকে বালিটিকুরী মুক্তারাম দে হাই স্কুল পর্যন্ত রাস্তার দুধারে উপচে পড়ছে ভিড়। প্রায় রোজ জেলায় জেলায় সভা করছেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। জেলায় জেলায় গিয়ে তাঁর নবজোয়ার কর্মসূচীতে যোগ দিচ্ছেন তিনি নিজে।

সেই সঙ্গে লোকসভা ভোটের প্রার্থীদের নিয়ে ভোট প্রচার করছেন।

লোকসভা ভোটে তৃণমূলের টার্গেট হাওড়ার দুই লোকসভা আসন উলুবেড়িয়া ও হাওড়া। এই দুই লোকসভা আসন তৃণমূল কংগ্রেসকে ভাল ফল দিয়ে আসছে বিগত কয়েকটি নির্বাচনে। এবারও বাংলার শাসক দলের লক্ষ্য এই দুই আসনের দিকেই।

হাইকোর্টের রায়ে যাদের চাকরি বাতিল হয়েছে, তার উপর কোনও স্থগিতাদেশ দেয়নি সুপ্রিম কোর্ট। আগামী সোমবার ফের এই মামলার শুনানি রয়েছে। এসবের মধ্য়েই ফের একবার 'যোগ্য' চাকরিহারাদের পাশে থাকার বিষয়ে জোরাল বার্তা দিল তৃণমূল।

সোমবার তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়ে দিলেন, 'মেধাযুক্ত যোগ্য চাকরিপ্রাপকদের' পাশে রয়েছে তাঁর দল। তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বললেন, ‘মেধাযুক্ত যে যোগ্যরা চাকরি পেয়েছেন, কেউ চিন্তা করবেন না… আমাদের সরকার, আমাদের দল আপনাদের পাশে থেকে কোমর বেঁধে, কাঁধে কাঁধ রেখে লড়াই করবে। কারও চাকরি যেতে দেব না। তার জন্য যা আইনি লড়াই, আমরা চালাব।’

মুখ্যমন্ত্রীর সেই বার্তার পরই শুরু হয়ে যায় আইনি লড়াইয়ের তোড়জোড়। হাইকোর্টের রায়কে চ্যালেঞ্জ করে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয় স্কুল সার্ভিস কমিশন। আজ সেই মামলার শুনানি ছিল শীর্ষ আদালতে। একইসঙ্গে সিপিএম ও বিজেপিকেও দুষতে ছাড়লেন না অভিষেক।

নিয়োগ মামলা সংক্রান্ত বিষয়ে বাম-বিজেপিকে নিশানা করে অভিষেক বলেন, “সিপিএমের বড় বড় নেতারা হাইকোর্টে মামলা করে যোগ্যদের চাকরি কেড়ে নিয়েছে। সিপিএমের দোসর হল বিজেপি। একদিকে মমতার সরকার চাকরি দিচ্ছে, অন্যদিকে সিপিএম-বিজেপি চাকরি খাচ্ছে।”


বিজেপি যাতে কোনওভাবেই মাথা তুলতে না পারে। পদ্মফুল না দেখুক, বিজেপি নেতারা সর্ষে ফুল দেখুক। সাধারণ মানুষের কাছে আবেদন করেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।


তাঁর বক্তব্যে ফের কেন্দ্রীয় বঞ্চনার কথা উঠে এসেছে। উদয় নারায়ণপুর, আমতার বিস্তীর্ণ এলাকা বন্যার কবলেও পড়ে। এদিনের বক্তব্যে সেই বন্যার কথাও তুলে ধরলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।


তিনি বলেন, হাওড়ার আমতা, উদয় নারায়ণপুরে বন্যা হয়। সেই সমস্যা দূর করতে বারংবার কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে আবেদন করা হয়েছে। কিন্তু সেভাবে সাড়া মেলেনি কেন্দ্রের কাছ থেকে। বন্যা নিয়ন্ত্রণে কেন্দ্রের কাছে বহু বার আবেদন করা হয়েছে। কোনও ফল পাওয়া যায়নি। সেই সমস্যাও আগামী দিনে দূর করবে রাজ্য সরকার।

একশো দিনের কাজের টাকা প্রসঙ্গেও সরব হয়েছেন অভিষেক। তিনি বলেন, কেন্দ্রীয় সরকার যা প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল, পূরণ হয়নি। একশো দিনের টাকা বাকি রেখেছে। রাজ্য সরকার তা দিতে শুরু করেছে। প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার টাকাও বন্ধ করে রেখেছে কেন্দ্র। বাড়ি তৈরির কাজ আটকে আছে রাজ্যে। এক্ষেত্রেও রাজ্য সরকার বঞ্চিত বলে তিনি অভিযোগ করেন।

Related Post

About Us

24 Hour Online Bengali & English News Portal Registered under Government of India. Head Office in Kokata.

Need Help? Connect Now