Jun 16, 2024
Political

Nandigram Unrest : "নন্দীগ্রামে খুনের রাজনীতি করছে বিজেপি" রাজীব

একদিন আগে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সভাকে ঘিরে মানুষের উন্মাদনা বিজেপির,শুভেন্দু অধিকারীর পায়ের তলার মাটি কাঁপিয়ে দিয়েছে।তাই খুন সন্ত্রাসের রাজনীতি করে মানুষকে নির্বাচন থেকে দুরে রাখার চক্রান্ত করেছে বিজেপি।অভিযোগ তৃনমূলের পূর্ব মেদিনীপুর জেলার পর্যবেক্ষক তথা রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী রাজীব ব্যানার্জীর।বিজেপির গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের দিকে ইঙ্গিত করে নন্দীগ্রামের তৃণমূল নেতা শেখ সুফিয়ানও দাবি কতেন, নন্দীগ্রামে পিছিয়ে পড়ার ভয়েই স্থানীয় বিজেপি বিধায়ক শুভেন্দু অধিকারী অশান্তি করাচ্ছেন। বিজেপির গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের জেরেই রথীবালা খুন হয়েছেন বলেও দাবি সুফিয়ানের।

বুধবার রাত্রে  সোনাচূড়ার মনসাপুকুর বাজার এলাকায়  পাহারা দিচ্ছিলেন বিজেপির কর্মী-সমর্থকেরা। অভিযোগ সেই সময়ই বাইকে করে আসা এক দল দুষ্কৃতী ধারালো অস্ত্র নিয়ে চড়াও হয় ।সেই সময়ে রথিবালা আড়ি নামে ওই বিজেপি কর্মীকে লক্ষ্য করে এলোপাথাড়ি কোপ মারে। রক্তাক্ত হয়ে রাস্তায় লুটিয়ে পড়েন তিনি। মাকে বাঁচাতে গিয়ে গুরুতর জখম হন রথিবালার পুত্র সঞ্জয় আড়িও। চিৎকার শুনে রথিবালা-সহ অন্যদের নন্দীগ্রাম সুপার স্পেশ্যালিটি হাসপাতালে নিয়ে যান স্থানীয়েরা। তবে হাসপাতালের চিকিৎসকেরা রথিবালাকে মৃত বলে জানান। রথিবালার পুত্রের অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাঁকে কলকাতায় স্থানান্তরিত করা হয়েছে। এ ছাড়াও এই ঘটনায় জখম আরও প্রায় ৭ জন বিজেপি কর্মীর নন্দীগ্রাম হাসপাতালেই চিকিৎসা চলছে বলে খবর।

এর পরেই বিজেপির স্থানীয় নেতারা সহ এলাকার বিধায়ক শুভেন্দু অধিকারী অভিযোগের আঙ্গুল তুলতে শুরু করে তৃনমূলের দিকে।সোনাচূড়ার মনসাপুকুর বাজারে পথ অবরোধ করে, ভাঙচুর করে আগুন লাগানো হয় কয়েকটি দোকানে। পুলিশ বার বার অবরোধ তোলার আবেদন জানালেও কাজের কাজ হয়নি। শেষ পর্যন্ত, লাঠি চালিয়ে বিজেপির কর্মী-সমর্থকদের সরিয়ে দেয় পুলিশ এবং কেন্দ্রীয় বাহিনী।

শুভেন্দু বলেন,অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় মিটিং করতে এসে প্ররোচনামূলক কথা বলেছিলেন। তার ফলস্বরূপ এই খুনের ঘটনা।

শেখ সুফিয়ান বলছেন,অভিষেক কোনও প্ররোচনা দেননি। তিনি হামলার বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে বলেছেন। সুফিয়ান বলেন,শুভেন্দু অধিকারী জানেন যে, নন্দীগ্রামে ডেফিসিট খাব, তাই এই ধরনের নক্কার জনক ঘটনা ঘটিয়েছে।

রাজীব ব্যানার্জীও একই দাবি করেছে।বলেন আদি এবং নব্য বিজেপির মধ্যে গন্ডগোল, মারামারি, ফাটাফাটি হয়। এক জনের মৃত্যু হয়েছে। এটা খুবই দুর্ভাগ্যজনক।সেই সাথে তাঁর অভিযোগ নিজেদের লড়াইকে সামনে রেখে সোনাচূড়ায় তৃণমূল সমর্থকদের একের পর এক বাড়ি ভাঙচুর করে লুটপাট চালিয়েছে বিজেপি।

Related Post

About Us

24 Hour Online Bengali & English News Portal Registered under Government of India. Head Office in Kokata.

Need Help? Connect Now